• মাধুকর প্রতিনিধি
  • তারিখঃ ১৮-১০-২০২২, সময়ঃ বিকাল ০৫:২৪
  • ৭৬ বার দেখা হয়েছে

গাইবান্ধা-৫ উপ-নির্বাচন ১৩৬ জন ব্যক্তির শুনানি সম্পন্ন নির্দিষ্ট সময়ে তদন্ত রির্পোট জমা 

গাইবান্ধা-৫ উপ-নির্বাচন ১৩৬ জন ব্যক্তির শুনানি সম্পন্ন নির্দিষ্ট সময়ে তদন্ত রির্পোট জমা 

ফুলছড়ি(গাইবান্ধা)প্রতিনিধি ►

গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনের উপনির্বাচনের ‘ব্যাপক অনিয়ম’ খতিয়ে দেখতে নির্বাচন কমিশন গঠিত ৩ সদস্যের প্রথম দিনের তদন্ত কার্যক্রম শেষ হয়েছে। এ দিন মোট ১৩৬ জন শুনানিতে অংশ গ্রহণ করেন।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় গাইবান্ধা সার্কিট হাউজে ইসির অতিরিক্ত সচিব ও গঠিত তদন্ত কমিটির প্রধান অশোক কুমার দেবনাথের নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনের গঠিত কমিটি তদন্ত কার্যক্রম শুরু করেন। প্রথমার্থে ফুলছড়ি উপজেলার ভোটগ্রহণে দায়িত্বরত ১১ প্রিসাইডিং অফিসার, ৬৬ জন সহকারি প্রিসাইডিং অফিসার, ৫৫ জন পোলিং এজেন্ট (প্রত্যেক প্রার্থীর পক্ষ থেকে) জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, ফুলছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, ফুলছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ ১৩৬ জনের শুনানি করা হয়। 

বেলা সাড়ে ৩টার দিকে তদন্তকারী কমিটির সদস্যরা স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়া কর্মীদের সাথে কথা বলেন। এসময় ইসির অতিরিক্ত সচিব ও গঠিত তদন্ত কমিটির প্রধান অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত রির্পোট জমা দেওয়া হবে। মঙ্গলবার ফুলছড়ি উপজেলার ১৩৬ জন ব্যক্তির শুনানি সম্পন্ন হয়েছে। 

আগামী কাল বুধবার সাঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সভাকক্ষে ৪০ জন প্রিসাইডিং কর্মকর্তা, ২৭৮ সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তা, ২০০ পোলিং এজেন্ট, সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা, সাঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সাঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ ৫২২ জনের শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। 

তিনি আরও বলেন, বৃহস্পতিবার গাইবান্ধা সার্কিট হাউসে পাঁচ প্রতিদ্ব›িদ্ব প্রার্থী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রশাসনের ২৭ জনের বক্তব্য শুনবে তদন্ত কমিটি। তদন্তে কি পেলেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি সংবাদকর্মীদের বলেন, তদন্তাধীন বিষয় নিয়ে এখনিই বলা যাচ্ছে না। তদন্ত করে নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া হবে। নির্বাচন কমিশন পরবর্তী সিদ্ধান্ত নিবে।

গত ১২ অক্টোবর গাইবান্ধা-৫ ফুলছড়ি-সাঘাটা আসনের উপনির্বাচনের সকার ৮ টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়। দুপুর পর্যন্ত বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে ৫১টি ভোট কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। পরবর্তীতে দুপুর আড়াইটার দিকে গাইবান্ধা-৫ আসনের সবগুলো কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ বন্ধ করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।
 

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়