• মাধুকর প্রতিনিধি
  • তারিখঃ ১০-১১-২০২২, সময়ঃ দুপুর ০১:৪২
  • ৪৯ বার দেখা হয়েছে

দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে গণধর্ষণ মামলায় চার ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে গণধর্ষণ মামলায় চার ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

দিনাজপুর প্রতিনিধি ►

দিনাজপুর চিরিরবন্দরে জোরপূর্বক গৃহবধূকে গণধর্ষণের মামলায় চার ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে গ্রেফতারকৃত চার ধর্ষককে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত ধর্ষক নাম মিজানুর রহমান মিজান(২৮) দিলীপ রায়(২৩), সোহেল রানা (২৫) ও নুর আলম (২২)। মিজানুর রহমান মিজান (২৮), দিনাজপুর জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার ইছামতি ঠাকুরেরমোড় মুন্সিপাড়ার জিকরুল হকের ছেলে।

শ্রী দিলীপ রায় (২৩) একই উপজেলার নুসরাতপুর দেওরিপাড়ার ঋষিকেশ রায়ের ছেলে। সোহেল রানা (২৫) একই উপজেলার নশরতপুর ডাঙ্গাপাড়ার মীরাজ আলীর ছেলে। মোঃ নূর আলম (২২), পার্বতীপুর উপজেলার রাজা বাসর ভূতপুকুর গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে।

নির্যাতিতা গৃহবধূ মোছাঃ আরিফা খাতুন আক্তার উপজেলার রানীপুরে একটি  পরচুলা কারখানায় শ্রমিক হিসাবে কাজ করিত। পরচুলা কারখানায় যাওয়া-আসার সময় প্রায় দিনই   মিজানুর রহমান  মিজান ভিকটিমকে প্রেম নিবেদন করিতো।  মিজানুর রহমান জানিতো যে বাদীনি  বিবাহিত ও ২ সন্তানের জননী। বাদীনি তাহার কথায় রাজি না হইলে সে সব সময় পিছু পিছু ফলো করিত। 

 ০৮ নভেম্বর মঙ্গলবার দিনগত রাত্রি অনুমান ০৯.০০ ঘটিকার সময় পার্শ্ববর্তী রানীপুর ডাঙ্গাপাড়ায় এতিমখানায় ইসলামী মাহফিল শোনার জন্য পায়ে হেটে যায়। রাত্রি অনুমান ১১.৪৫ ঘটিকার সময় সেখানে বাদীনিকে দেখতে পাইয়া বিভিন্ন কৌশলে মাহফিলের স্থান হইতে একটু দুরে চিরিরবন্দরের নশরতপুর ইউনিয়নের দেন্দাপাড়া দিনেশ চন্দ্র রায় বাঁশ ঝাড়ের উত্তর সংলগ্ন ফাঁকা জায়গায় নিয়ে যায়।

ফাঁকা জায়গায় মিজানুর রহমান ফুসলাইয়া কৌশলে বাদীনির ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। পরে দিলীপ, সোহেল ও নূর আলম পালাক্রামে গণ ধর্ষণ করে। 

চিরিরবন্দর থানার ওসি বজলুর রশিদ গণধর্ষণ মামলায় চার আসামীকে গ্রেফতারের সংবাদ নিশ্চিত করে বলেন ধর্ষিতা গৃহবধূ ৯ নভেম্বর ধর্ষণের মামলা দায়ের করলে পুলিশ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে বুধবার দিনগত রাতে এই চার ধর্ষককে গ্রেফতার করে।প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষকেরা ধর্ষণের দায় স্বীকার করেছেন। ধর্ষিতা গৃহবধূকে ফরেনসিল রিপোর্ট এর জন্য দিনাজপুরে আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ফরেন্সি বিভাগে প্রেরণ করা হয়েছে বলে তিনি নিশ্চিত করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়