• মাধুকর প্রতিনিধি
  • তারিখঃ ২৪-১২-২০২২, সময়ঃ বিকাল ০৫:৫৮
  • ৭৪ বার দেখা হয়েছে

দৈনিক ইত্তেফাক বাংলার শোষিত মানুষকে স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখিয়ে ছিল

দৈনিক ইত্তেফাক বাংলার শোষিত মানুষকে স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখিয়ে ছিল

নিজস্ব প্রতিবেদক  ►                   

গাইবান্ধা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. খলিলুর রহমান বলেন, ইত্তেফাক বাংলার (তৎকালীন পূর্ব পাকিস্থান) শোষিত মানুষকে স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখিয়ে ছিল। ইত্তেফাক মানে একটি ইতিহাস। বাংলাদেশের ইতিহাস ইত্তেফাককে বাদ দিয়ে লিখা যাবে না। বাংলাদেশে অভূদয়ের সকল আন্দোলন-সংগ্রামে ত্যাজোদীপ্ত ভূমিকা রেখেছে ইত্তেফাক।

এসব কারণে এই পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া সাংবাদিকতার ইতিহাসে চির স্মরণীয় ও পথিকৃৎ হয়ে থাকবেন। তার সাংবাদিকতার জীবনে কারো সাথে আপোস ও মাথা নত করেননি। তার হাত ধরে ইত্তেফাক দেশ, জাতি ও জনগণের মূখপত্র হিসাবে পরিণত হয়েছিল। 
শনিবার বিকেলে দৈনিক ইত্তেফাকের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানে প্রেসক্লাবের সভাপতি কে. এম রেজাউল হকের সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি গাইবান্ধা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. খলিলুর রহমান এসব কথা বলেন। 

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বিশিষ্ট সাহিত্যিক ও সাংবাদিক গোবিন্দলাল দাস, বিশিষ্ট কবি ও গীতিকার এবং কালের কন্ঠের প্রতিনিধি অমিতাভ দাস হিমুন, প্রথম আলোর প্রতিনিধি শাহাবুল শাহীন তোতা, আরটিভির প্রতিনিধি জান্নাতুল ফেরদৌস জুয়েল, ইন্ডিপেন্ডডেন্ট টিভির প্রতিনিধি আরিফুল ইসলাম বাবু, সমকালের জেলা প্রতিনিধি উজ্জল চক্রবর্ত্তী,  সাদুল্লাপুর পাবলিক লাইব্রেরী এন্ড ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক বাহরাম খান শাহীন, সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলম, গাইবান্ধা ডট নিউজের সম্পাদক কায়সার রহমান রোমেল, সময়টিভির প্রতিনিধি এসএম বিপ্লব, সাদুল্লাপুর ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কামরুল ইসলাম প্রমূখ। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম, সাংবাদিক আনোয়ার হোসেন মাসুদ, সাংবাদিক ছোলায়মান সরকার, গাইবান্ধা সন্ধানী ডোনার ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিশাদ, পরিবর্তন পাঠাগারের সভাপতি মাহমুদুল হাসান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক মোরসালিন হোসেন, বাধনের উপদেষ্টা মিল্লাত হোসেন প্রমূখ। 

শেষে দৈনিক ইত্তেফাকের শুভ কামনায় কেক কাটেন আমন্ত্রিত অতিথিরা। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন দৈনিক ইত্তেফাকের জেলা প্রতিনিধি তাজুল ইসলাম রেজা।   
 

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়