• মাধুকর প্রতিনিধি
  • তারিখঃ ৩১-১২-২০২২, সময়ঃ রাত ০৭:২১
  • ৫১ বার দেখা হয়েছে

পলাশবাড়ীতে সরিষা চাষে বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

পলাশবাড়ীতে সরিষা চাষে বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

পলাশবাড়ী প্রতিনিধি ►

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় দিগন্ত বিস্তৃত  ফসলের মাঠ জুড়ে সরিষা চাষ গত বছরের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে এবছর চলতি মৌসুমে ১৪শ ৮৫ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষে বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে ।

বাজারে ভোজ্যতেল এর দাম বাড়তি হওয়ার কারনে সরিষার কদর বেড়ে যাওয়ায় কৃষকরা সরিষা চাষে ঝুকেছেন পড়েছেন।কৃষকরা তাদের জমিতে নতুন করে রবি ফসল চাষের উদ্যোগে ওই সকল জমিতে সরিষার বীজ বপন করে।ফসলের মাঠে এখন সবুজের সমারোহে ভরে গেছে। সবুজের সমারোহে সরিষা ফুলে ফুলে হলুদ রঙে রাঙিয়েছে দিগন্ত বিস্তৃত ফসলের মাঠ। ফসলের মাঠে সরিষার হলুদ ফুলের গন্ধে মৌমাছি ফুলের রেনু থেকে মধু সংগ্রহ করতে শুরু করেছে।

উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, চলতি ২০২২-২৩ অর্থ বছরে রবি মৌসুমে উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে পলাশবাড়ী উপজেলা কৃষি অফিস থেকে ২০০০(দুই) হাজার জন কৃষককে ১ কেজি সরিষা বীজ,১০ কেজি ডিএপি,১০ কেজি এমওপি দেয়া হয়েছে।গত বছর এ উপজেলায় কৃষকরা ৮ শ” হেক্টর জমিতে সরিষা চাষ করেছিলেন।এবছর চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় ১৪’শ ৮৫ হেক্টর জমিতে কৃষকরা সরিষা চাষ করেছেন।

উপজেলার কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের কৃষক মিজানুর রহমান জানান,আমি এবার ১ বিঘা জমিতে সরিষা চাষ করেছি।জমি চাষ,বীজ বপন,সার দেওয়াসহ এপর্যন্ত আমার খরচ হয়েছে সাড়ে ৩ হাজার টাকা।সরিষা চাষ ভালো হয়েছে তবে জমিতে একটু পানি দিতে পারলে আরো ফসল ভালো হতো।তিনি আরও জানান,আবহাওয়া শেষ পর্যন্ত অনুক‚লে থাকলে বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা করছেন। সেই সাথে কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে।ফসল ঘরে উঠানোর স্বপ্ন নিয়ে আশার আলো দেখছেন। কৃষক মোহাম্মদ কুদ্দুস মিয়া জানান, সরিষা চাষে যেমন খরচ কম তেমনি লাভবান জনক।

এ ফসল চাষে সময়ও কম লাগে।তাই সরিষা চাষ করেছি। আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় কৃষকরা সরিষা চাষে এবার ভালো ফলন পাবে বলে জানান। পলাশবাড়ী উপজেলা কর্মকর্তা ফাতেমা কাওসার মিশু জানান, সরিষা চাষ এবছর অনেক ভালো হয়েছে।আবহাওয়া ভাল থাকলে কৃষকরা লাভবান হবেন আশা করছি।

 

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়