• মাধুকর প্রতিনিধি
  • তারিখঃ ১-১১-২০২২, সময়ঃ দুপুর ০২:১৬
  • ১৬৮ বার দেখা হয়েছে

পীরগঞ্জে বাধ কেটে জমি তৈরির অভিযোগ

 পীরগঞ্জে বাধ কেটে জমি তৈরির অভিযোগ

পীরগঞ্জ(রংপুর) প্রতিনিধি ►

রংপুরের পীরগঞ্জে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্মিত বাঁধ কেটে জমির কলেবর বৃদ্ধির অভিযোগ পাওয়া গেছে। সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পীরগঞ্জ উপজেলার চতরা এবং কাবিলপুর ইউনিয়নে এক সময় প্রতিবছর কৃষি আবাদি জমির ফসল বন্যার পানিতে ডুবিয়ে যেতো। পানির তোড়ে ঘরবাড়ি জমি জিরাত সব ভেঙ্গে তছনছ হয়ে যেতো। 

সারা বছর এলা কাবাসীকে অভাব অনটনের সাথে লড়াই করতে হতো। বিগত ১৯৯৬ সালে দুই ইউনিয়নের মানুষের ভগ্যোন্নয়নে বাধ নির্মাণের দাবি জানানো হলে ১’শ টন চাল বরাদ্দ দেয় দেয়া হয়। ওই বরাদ্দে তৎকালীন চেয়ারম্যান আলেয়া জলিল বাঁধ নির্মাণ করেন। বর্তমানে স্থানীয় লোকজন বাধের মাটি কেটে আবাদি জমির কলেবর বৃদ্ধি করছে। 

স্থানীয়রা জানান, বড় বদনা পাড়া গ্রামের স্কুল শিক জাফর মাষ্টার এবং তার বাবা নুরুল হাই বাধ কেটে জমিতেবৃদ্ধি করছেন। গত বছর থেকে তারা এই সরকারি বাধ কাটা শুরু করেন। এলাকাবাসীর অভিযোগ, বড় বদনা পাড়া গ্রামের জাফর মাষ্টার এবং তার বাবা নুরুল হাইসহ তাদের জমি সংলগ্ন সরকারি বাধের মাটি কেটে নিজেদের জমির কলেবর বৃদ্ধি ও উঁচু করছেন। 

এ ব্যাপারে জিজ্ঞেস করা হলে জাফর মাষ্টার বলেন-আমরা তো সরকারের বাধ কাটছি না। আমাদের জমির উপর দিয়ে বাঁধ নির্মাণ করা হয়েছে। জমির খাজনা, দলিল এবং রেকর্ড আমাদের নামে রয়েছে। অধিগ্রহণের মাধ্যমে জমি নিলে আমরা জমি দিতে রাজি আছি। বাঁধ কেটে নেয়ায় হুমকির মুখে পড়েছে বাধ সংলগ্ন গ্রামগুলো। আসন্ন বর্ষা মওসুমে বাধ ভেঙ্গে পানি প্রবেশ করলে আশপাশের গ্রামগুলো তলিয়ে যাবে। দুর্ভোগে পড়বেন ওই এলাকার মানুষজন। রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের এসডি’র সাথে কথা হলে তিনি বলেন টোংরার দহ্ বাধটি ওই সময় স্থানীয় চেয়ারম্যান নির্মাণ করেন। কেউ বাধ কাটালে সে  বিষটি তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
 

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়