• মাধুকর প্রতিনিধি
  • তারিখঃ ২১-১২-২০২২, সময়ঃ সন্ধ্যা ০৬:৪৫
  • ৬৭ বার দেখা হয়েছে

ফুলবাড়ীতে ইউপি সদস্যকে মারপিটের প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি শুরু

ফুলবাড়ীতে ইউপি সদস্যকে মারপিটের প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি শুরু

ফুলবাড়ী প্রতিনিধি ►

আবাসন প্রকল্পের রাস্তা নির্মাণকে কেন্দ্র করে ইউপি সদস্যকে মারপিটকারীকে গ্রেপ্তারসহ শাস্তির দাবিতে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি শুরু করেছেন দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার ৭নং শিবনগর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য।

বুধবার (২১ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ইউনিয়ন পরিষদের সকল কক্ষে তালা ঝুলিয়ে কর্মবিরতি শুরু করেছেন ইউপি সদস্যরা। এতে ইউনিয়ন পরিষদের সকল সেবা কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন সেবাগ্রহীতারা। 

শিবনগর ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে দেখা যায়, শিবনগর ইউনিয়ন পরিষদের সব কয়টি কক্ষে তালা ঝুলছে। পরিষদের সামনে ইউপি চেয়ারম্যানসহ ইউপি সদস্যরা প্লাকার্ড হাতে বিক্ষোভ করছেন। সচিব, হিসাব সহকারীসহ ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তরা উপস্থিত থাকলেও কক্ষ বন্ধ থাকায় কোন কাজ করতে পারেননি তারা। ফলে বিভিন্ন এলাকা থেকে সেবাগ্রহীতা জন্ম-মৃত্যু সনদ, ট্রেড লাইসেন্সসহ বিভিন্ন কাজে এসে সেবা না পেয়ে ফিরে যেতে হয়েছে। 

হামলার শিকার ইউপি সদস্য শাহীন সরদার বলেন, সরকারের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন। একই কারণে তার মেয়েরও শ্লীলতাহানী ঘটানো হয়েছে। সন্ত্রাসী আক্তারুজ্জামানকে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত না হলে জনপ্রতিনিধিরা সরকারের প্রকল্প বাস্তবায়নে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবেন।

অভিযুক্ত আক্তারুজ্জামান মন্ডলের ব্যক্তিগত ব্যবহৃত ০১৭১৪ ৮৬৪২৪৬ নম্বরের মুঠোফোনে ফোন দেওয়া হলে ফোনের সুইচ অব পাওয়া যায়। ফলে এ বিষয়ে তার কোন বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। 

ইউপি সচিব প্রদীপ কুমার অধিকারী বলেন, ইউপি সদস্যরা কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেওয়ায় কাজ করা সম্ভব হয়নি।

ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান দীলিপ চন্দ্র রায় বলেন, হামলাকারী আক্তারুজ্জামানকে গ্রেপ্তার না করা পর্যন্ত ইউনিয়ন পরিষদের কর্মবিরতি অব্যাহত থাকবে। প্রয়োজনে উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের ৮৪ জন ইউপি সদস্যকে নিয়ে সকল ইউনিয়ন পরিষদের কর্মবিরতি শুরু করা হবে।

সদ্য যোগদানকারী ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ ওয়াসিকুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি নিয়ে বিদায়ী ইউএনও রিয়াজ উদ্দিন এবং উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টন গতকাল বুধবার (২১ ডিসেম্বর) বিকেলে বৈঠকে বসেছেন। 

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টন বলেন, বিষয়টি সমাধানের জন্য দুই পক্ষকে নিয়ে বৈঠকে বসা হয়েছে। এখন সন্ধ্যা সোয়া ৬ টা পর্যন্ত বৈঠক চলছে। আশা করা যায় সম্মানজনক সমাধান হয়ে যাবে। 

উল্লেখ্য, গত ১৮ ডিসেম্বর বিকেল ৩ টার দিকে উপজেলার ৭নং শিবনগর ইউনিয়নের দেবীপুর আশ্রায়ণ প্রকল্পের মাটির রাস্তার নির্মাণ করার সময় পার্বতীপুর উপজেলার হাবড়া ইউনিয়নের শংকরপুর গ্রামের করিম মন্ডলের ছেলে আক্তারুজ্জামান মন্ডল রাস্তার কাজ বন্ধ করে তার জমির মাটি কাটার অভিযোগ তুলে ইউপি সদস্য শাহীন সরদারকে কোদাল দিয়ে মাথায় আঘাত করেন। এতে মাথায় রক্ত ক্ষরণ শুরু হলে তাকে মুমুর্ষূ অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। 
 

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়