• মাধুকর প্রতিনিধি
  • তারিখঃ ২০-১১-২০২২, সময়ঃ বিকাল ০৫:০৪
  • ৬৩ বার দেখা হয়েছে

ফুলবাড়ীর চাঞ্চল্যকর অটোরিকশা চালক হত্যা মামলায় দুইজন আটক

ফুলবাড়ীর চাঞ্চল্যকর অটোরিকশা চালক হত্যা মামলায় দুইজন আটক

ফুলবাড়ী প্রতিনিধি ►

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে চাঞ্চল্যকর অটোরিকশা চালক জনি আহম্মেদ হত্যাকা- ঘটনায় আসমাউল হোসেন আকাশ (২২) ও মামুনকে (১৮) গত শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) ঢাকার ফকিরাপুল কাঁচা বাজার থেকে আটক করা হয়েছে। 

আটককৃত আসমাউল হোসেন আকাশ ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের রাজারামপুর ঘাটপাড়া গ্রামের আছাদুল ইসলামের ছেলে এবং মামুন ফুলবাড়ী পৌর এলাকার স্বজনপুকুর বুন্দিপাড়া গ্রামের সাখাওয়াত হোসেনের ছেলে। 

মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) আবুল কালাম আজাদ বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক দুইজন জানিয়েছেন, ঘটনার দিন (২৯ অক্টোবর) দিবাগত রাত ১০টার দিকে ফুলবাড়ী পৌরশহরের ঢাকা মোড় এলাকা থেকে জনি আহম্মেদের অটোরিকশা ভাড়া নিয়ে যাওয়ার পথে শিবনগর ইউনিয়নের হক সাহেবের ইটভাটার কাছে আসার পর জনি আহম্মেদ আর যেতে না চাইলে তারা তাকে ক্ষিপ্ত হয়ে জনিকে জোরপূর্বক পাশের ইউক্যালিপটাস বাগানে নিয়ে কাঁচি দিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা করে অটোরিকশাটি নিয়ে পার্বতীপুরের দিকে পালিয়ে যায়। ওই রাতেই পার্বতীপুর থানা পুলিশ হলদিবাড়ী নামক স্থানে ধাওয়া করলে তারা অটোরিকশাটি ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। এরপর থেকে তারা আত্মগোপনে ছিল। হত্যাকান্ড ঘটনায় দায়েরকৃত মামলা এবং ঘটনাস্থল থেকে পাওয়া এক জোড়া জুতার সূত্র ধরে পুলিশ তদন্ত শুরু করে। হত্যাকান্ডের ২০ দিন পর গত শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) ঢাকার ফকিরাপুল কাঁচা বাজার থেকে তাদেরকে আটক করা হয়েছে। 

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আশ্রাফুল ইসলাম বলেন, আটক দুইজনকে গত শনিবার (১৯ নভেম্বর) বিকেলে দিনাজপুর জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। সেখানে তারা দোষ স্বীকার করে বিজ্ঞ ম্যাজিষ্ট্রেটের কাছে ১৬৪ ধারা মতে জবানবন্দি প্রদান করেছেন। অটোরিকশা চালক জনি আহম্মেদের হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত তিন অপরাধির মধ্যে দুইজনকে আটক করা হয়েছে। অন্যজনকেও আটকের অভিযান চলছে। এরা অটোরিকশা চোর চক্রের সদস্য।   

উল্লেখ্য, গত ৩০ অক্টোবর ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া-মাছুয়াপাড়ার মাঝামাঝি হক সাহেবের ইট ভাটার পূর্ব পার্শ্বের ইউক্যালিপ্টাস বাগানে অটোরিকশা চালক ও শিবনগর ইউনিয়নের রাজারামপুর দক্ষিণ বাসুদেবপুর (ডাঙ্গা) গ্রামের আতাউর রহমানের ছেলে জনি আহম্মেদের (২১) রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। দুর্বৃত্তরা কাঁচি দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা করে জনি আহম্মেদের অটোরিকশা নিয়ে পালিয়ে যায়। 

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়