• মাধুকর প্রতিনিধি
  • তারিখঃ ১২-১২-২০২২, সময়ঃ সকাল ০৯:০০
  • ৫৪ বার দেখা হয়েছে

বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল-ফাইনাল হবে নতুন বলে

বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল-ফাইনাল হবে নতুন বলে

স্পোর্টস ডেস্ক  ►

দেখতে দেখতে শেষের পথে কাতার বিশ্বকাপ। ৬৪ ম্যাচের মধ্যে ৬০টি ম্যাচেরই নিষ্পত্তি ঘটেছে। দলের সংখ্যা ৩২ থেকে নেমে ছোট হয়ে এসেছে চারে। বাকি আছে শুধু দুটি সেমিফাইনাল, তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ও ফাইনাল। আর সেই ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে নতুন বলে। তা প্রকাশ করেছে বিখ্যাত ক্রীড়া সামগ্রী প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান এডিডাস।

এতোদিন আল রিহলা বলে খেলা হয়েছে কাতার বিশ্বকাপে। তবে সেমিফাইনাল থেকে খেলা হবে ‘আল হিলম’ বলে। যার অর্থ ‘স্বপ্ন’। সেই বলে লাথি মেরেই স্বপ্ন পূরণের পথে এগিয়ে যাবে দলগুলো।

আল রিহলার মতোই প্রযুক্তির ছোঁয়ায় মোড়ানো থাকবে আল হিলম। সেমি অটোমেটেড প্রযুক্তির কারণে অফ-সাইড সিদ্ধান্ত নিতে এবার বিতর্কের মুখে পড়তে হয়নি ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারিদের (ভিএআর)। বরং দ্রুতই মাঠে রেফারিকে নির্ভুল সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করছেন তারা।

ফিফার ফুটবল প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনের পরিচালক জোহানেস হোলজমুলার বলেন, ‘কানেক্টেড বল টেকনোলোজির বিকাশের মাধ্যমে ভিডিও ম্যাচ অফিসিয়ালদের জন্য তথ্যের আরেকটি অতিরিক্ত গুরুত্বুপূর্ণ স্তর বানাতে সম হয়েছে এডিডাস। বল থেকে পাওয়া উপাত্ত এক নতুন অন্তর্দৃষ্টি খুলে দিল বিশ্বকাপে মাঠের চারপাশে অনন্য মুহূর্তগুলোর গল্প বলার জন্য। ’ 

পরিবেশের সঙ্গে মিশে যেতে আল হিলমের সকল উপাদান খুব সতর্কভাবে বিবেচনা করা হয়। বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল ও ফাইনাল ইতিহাসে আল হিলম-ই প্রথম বল যা কি-না শুধুমাত্র তরল কালি ও আঠা দ্বারা তৈরি। বলে সেই আল রিহলার মতোই সুক্ষ্ম ত্রিভুজাকৃতির প্যাটার্ন রাখা হয়েছে। প্যাটার্নগুলো কাতারের পতাকার রংয়ে আবৃত। সঙ্গে বলে কিছুটা সোনালী আভা রয়েছে যা কি-না বিশ্বকাপের সোনালী ট্রফি ও দোহার চকচকে মরুভূমি থেকে অনুপ্রাণিত।

বলটি নিয়ে এডিডাস ফুটবলের জেনারেল ম্যানেজার বলেন, ‘বিশ্বকে একত্রিত করার জন্য খেলাধুলা ও ফুটবলকে আলোর বাতিঘর হিসেবে উপস্থান করবে আল হিলম। বিশ্বের প্রায় সব দেশ থেকে লাখ লাখ লোক খেলাটির প্রতি আবেগের জন্য একত্রিত হবে। টুর্নামেন্টের চূড়ান্ত পর্যায়ে থাকা সব দলকে শুভকামনা জানাই আমরা। কারণ তারা ফুটবলের সবচেয়ে বড় মঞ্চে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। ’ 

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়