• মাধুকর প্রতিনিধি
  • তারিখঃ ৮-১২-২০২২, সময়ঃ দুপুর ০২:৫০
  • ১১০ বার দেখা হয়েছে

শহীদ মিনার নেই ৪৯ মাদ্রাসায়

শহীদ মিনার নেই ৪৯ মাদ্রাসায়

সুন্দরগঞ্জ প্রতিনিধি  ►

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ১৫টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ৪৯টি মাদ্রাসার একটিতেও নেই নিজস্ব শহীদ মিনার। এর মধ্যে ২টি ফাজিল ও ৪টি আলিম মাদ্রাসা রয়েছে। যে সব মাদ্রাসার সাথে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় রয়েছে, সেই সব মাদ্রাসা মাঠে শহীদ মিনার লক্ষ্য করা গেছে। এর পরিমান হাতে গোনা ৫ হতে ৬টি হতে পারে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

সরকার স্বাধীনতা দিবস, বিজয় দিবস, শহীদ দিবস, ভাষা দিবসসহ বিভিন্ন জাতীয় দিবস পালনে পরিপত্র জারি করলেও শহীদ মিনার নির্মাণ করার ক্ষেত্রে তেমন কোন ভুমিকা পালন করছেন না। সে কারনে শিক্ষার্থীরা বাংলার ইতিহাস ও ঐতিহ্য দিন দিন ভুলে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের মাঝে তেমন কোন সারা দেখা যায়নি। 

উপজেলার সদর দাখিল মাদ্রাসার সুপার আবুল হোসেন বলেন, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সমুহ অত্যন্ত অবহেলিত। এরমধ্যে বিশেষ করে ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মাদ্রাসা সমুহের অবস্থা শোচনীয়। অবকাঠামো নির্মাণের ক্ষেত্রে সরকারিভাবে নেই কোন উদ্যোগ। প্রতিষ্ঠান এবং ব্যক্তি উদ্যোগে কোন কিছু নির্মান করা অত্যন্ত কষ্টকর । স্বদিচ্ছা থাকা সত্বেও অর্থ, পরিকল্পনা, নজরদারি, কতৃপক্ষের উদাসিনতার কারনে কোন কিছু করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক সকল জাতীয় দিবস সমুহ যথাযথ ভাবে পালন করা হয়।

উপজেলা মাধমিক শিক্ষা অফিসার মাহমুদ হোসেন মন্ডল জানান, স্বদিচ্ছার অভাবে মাদ্রাসা সমুহে শহীদ মিনার নেই। তবে দিবস সমুহ আসলে ভ্রামম্যান উপায়ে শহীদ মিনার নির্মাণ করে দিবস সমুহ পালন করে থাকেন প্রতিষ্ঠান সমুহ। ইতিহাস ও ঐতিহ্য ধরে রাখার জন্য স্থানীয় প্রশাসন ও সরকারি ভাবে প্রতিষ্ঠান সমুহে শহীদ মিনার নির্মাণ করা একান্ত প্রয়োজন। 

উপজেলা নিবার্হী অফিসার মোহাম্মদ আল মারুফ জানান, বিষয়টি ওইভাবে কখনো ভাবা হয়নি। আসলেই স্বাধীনতার ইতিহাস ঐহিত্য ধরে রাখার জন্য প্রতিটি প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার থাকা আবশ্যক। আশু এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আশরাফুল আলম সরকার জানান, স্বাধীনতার ৫০ বছর অতিক্রান্ত হলেও স্বাধীন সার্বভৌমত্বের মর্যাদার ছাপ প্রতিষ্ঠিত করা আজও সম্ভব হয়নি। এর পিছনে অনেক কারন রয়েছে। শুধু সরকারি উদ্যোগে সবকিছু করতে হবে তা নয়। নিজস্ব অর্থায়নে এবং স্বদিচ্ছার বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়ে এসব কর্মকান্ডে এগিয়ে আসতে হবে। তাহলে সম্ভব স্বাধীনতার সার্বভৌমত্ব রক্ষা করা।
 

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়