• মাধুকর প্রতিনিধি
  • তারিখঃ ২-১-২০২৩, সময়ঃ বিকাল ০৪:৪০
  • ৬৩ বার দেখা হয়েছে

সংবাদ সম্মেলন হত্যা প্রচেষ্টার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি

সংবাদ সম্মেলন হত্যা প্রচেষ্টার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক ►

গাইবান্ধা-৫ (সাঘাটা-ফুলছড়ি) আসনের উপ-নির্বাচনের প্রার্থী সৈয়দ মো. মাহবুবুর রহমান তাঁর বাড়িতে হামলা ও হত্যা প্রচেষ্টার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষীদের বিচার দাবি করেছেন। গতকাল সোমবার গাইবান্ধা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই দাবি করেন।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি উল্লেখ করেন, সাঘাটার মুক্তিনগর ইউনিয়নের ধনারূহা গ্রামে তার বাড়িতে গত ২৮ ডিসেম্বর লিটন নামে এক সশস্ত্র যুবক তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করে। দুর্বৃত্ত লিটন প্রকাশ্য দিবালোকে একটি ধারালো চাইনিজ চাপাতি হাতে উপস্থিত লোকজনের বাঁধা উপেক্ষা করে বাড়ির গেইট বেয়ে বাড়ির ভিতরে ঢোকে এবং ক্ষিপ্র গতিতে অস্ত্র হাতে সিঁড়ি বেয়ে দোতলায় উঠে যায়। 

ইতিমধ্যে উপস্থিত লোকজনের আর্তচিৎকারে শত শত লোক বাড়ির চারপাশে উপস্থিত হলেও সশস্ত্র এই দুর্বৃত্তকে বাধা দানে কেউ সহায়তা করেনি। সে প্রথমে দোতলার সব দরজা বন্ধ পেয়ে তিন তলায় চলে যায়। এভাবে সে দোতলায় ছুটাছুটি করে কাউকে না পেয়ে সর্বশেষ তিন তলার জানালাগুলো স্নো-বল নামে একটি বিদেশী পোষা বিড়ালকে নির্মমভাবে গলা কেটে হত্যা করে। এরপর সে বাড়ির দোতলার শয়ন কক্ষের দরজা ভেঙ্গে সেখানে আশ্রয় নেয়। জমায়েত হওয়ার শত শত লোকের চিৎকারে সে আতংকিত হয়ে নিজেই নিজের শরীর ছুরি দিয়ে কাটে। পরে তার বাবা এসে তাকে নিরস্ত্র করে এবং বেঁধে ফেলে। ইতোমধ্যে থানা থেকে পুলিশ এসে তাকে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় থানায় দু’জনের বিরুদ্ধে লিটন ও রানা নামে দু’যুবকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন সৈয়দ মো. মাহবুবুর রহমান। 

সংবাদ সম্মেলনে তিনি প্রশ্ন রাখেন কে বা কাহারা তাকে আমার বাড়ির সামনে দিয়ে যায়? সে এত ধারালো চাইনিজ চাপাতি কোথায় পেলো? ১৪টি বেড রুমের মধ্যে আমার বেড রুমটি সে কিভাবে চিনলো? ২ কিলোমিটার দুর থেকে এতদুর এসে কেন সে আমার বাড়িটিকে টার্গেট করলো? 

ঐ সময় আমি বা আমরা কেউ থাকলে নিশ্চিত তার হাতে মারা যেতাম। কারণ নির্বাচনের সময় আমার বাড়িতে প্রতিদিন শত শত চেনা অচেনা মানুষের আনাগোনা। চলমান উপ-নির্বাচনের কারণ ছাড়া তার বা পরিবারের কোন সদস্যের সঙ্গে এলাকার কোন মানুষের সামান্যতম বিরোধ নেই। এমতাবস্থায় নির্বাচনে অংশগ্রহণ এবং বিভিন্ন পথসভায় বক্তব্যের কারণে এটা ঘটেছে কিনা সেটা আইন প্রয়োগকারী সংস্থা খুঁজে দেখবেন বলে তিনি আশা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়