• মাধুকর প্রতিনিধি
  • তারিখঃ ২০-১০-২০২২, সময়ঃ রাত ০৭:৩৭
  • ৫৩ বার দেখা হয়েছে

সাঘাটায় রোগবালাইয়ে নষ্ট হচ্ছে আমন ক্ষেত, কৃষক বিপাকে

সাঘাটায় রোগবালাইয়ে নষ্ট হচ্ছে আমন ক্ষেত, কৃষক বিপাকে

জয়নুল আবেদীন, সাঘাটা ►

সাঘাটা উপজেলায় চলতি শৌসুমে নানা রোগবাইয়ে আক্রান্ত হয়ে নষ্ট হচ্ছে আমন ক্ষেত। ঔষধ প্রয়োগ করেও কোনো প্রতিকার না পাওয়ায় কৃষক দিশেহারা হয়ে পড়েছে।  

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে উজেলার ১০টি ইউনিয়নে  হাইব্রিড ও স্থানীয় জাত মোট ১৩ হাজার ৭৬৯ হেক্টোর জমিতে আমন ধান রোপন করা হয়েছে। এবার বন্যা না হওয়ায় নিচু জমিতেও কৃষক আমন ধান রোপন করেছেন। ফলে অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার লক্ষমাত্রার চেয়ে প্রায় ৩শ’ হেক্টোর জমিতে বেশী রোপন করা হয়েছে। এবার আবহওয়া অনুকুলে থাকায় আমন ধানের বেশী ফলন হবে এমন কথা কৃষি কর্মকর্তারা বললেও ধান ক্ষেতে দেখা যাচ্ছে ভিন্ন চিত্র। 
সরজমিনে এলাকায় এলাকায় গেলে আমন ধান ক্ষেতে রোগবালাইয়ে আক্রান্ত হওয়ার চিত্র চোখে পড়ে। 

এসময় কথা হয় ঘুড়িদহ ইউনিয়নের মথরপাড়া গ্রামের কৃষক আহম্মদ হোসেন, আব্দুস সালাম,কামালের পাড়া ইউনিয়নের ভগবানপুর গ্রামের আইয়ুব হোসেন, গোরের পাড়া গ্রামের শাহিনসহ বিভিন্ন মৌজার অনেক কৃষকদের সাথে। তারা জানান, চলতি মৌসুমে কোনো কোনো আমন ধানের ক্ষেতে রোগবালাই শুরু হয়ে ধান ক্ষেত নষ্ট হচ্ছে। ধানের পাতা হলুদ হওয়া, শুকিয়ে যাওয়া এবং পোকার আক্রমনে ধান ক্ষেত নষ্ট হচ্ছে। কৃষি অফিসের পরামর্শ অনুযায়ী ঔষধ প্রয়োগ করেও কোন কাজ হচ্ছে না বলে কৃষকদের অভিযোগ। এদিকে এলাকার কৃষকরা বিভিন্ন হাট-বাজারের সার ও কিটনাশক ব্যবসায়ীদের কাছে পরামর্শের জন্য গেলে ওই ব্যবসায়ীরা কমদামের কিটনাশক প্রয়োগ করার জন্য চড়াদামে কৃষকদের হাতে ধরিয়ে দেন। না জেনে না বুঝে সেই কীটনাশক প্রয়োগ করেও কোনো কাজ হচ্ছে না বরং আর্থিকভাবে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে কৃষকেরা।

এব্যাপারে সাঘাটা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সাদেকুজ্জামানের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, বর্তমানে রোপা আমন ক্ষেতে ধান গাছের পাতা হলুদ হওয়া কোন রোগ নয়। ছত্রাক নাশক ঔষধ প্রয়োগ করলেই ঠিক হয়ে যায়। সমস্যা হবে না এবার আবহাওয়া অনুকুলে রয়েছে কৃষক ধানের ফলন ভালো পাবে বলে জানান এ কৃষি কর্মকর্তা।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়